গোপালগঞ্জে ভাড়াটিয়াদের মারধরের প্রতিবাদ করায় হামলা, আহত-৩:মামলা দায়ের

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার হরিদাসপুরে ভাড়াটিয়াদের মারধরের প্রতিবাদ করায় সশস্ত্র হামলায় বাড়ীর মালিক শিক্ষানবিশ আইনজীবী হাফিজা খানম সহ আরো ২ জন গুরুতর আহত হয়।

এঘটনায় ৫ জনকে আসামী করে গোপালগঞ্জ সদর থানায় একটি অভিযোগ দ্বায়ের করেছেন ভুক্তভোগী হাফিজা খানম ।

হরিদাসপুর গ্রামের বাসিন্দারা বলেন, এই গ্রামের প্রবাসী সামাদ শেখের বাড়ীতে ভাড়াটিয়াদের প্রায়ই মারধর করে। ভাড়াটিয়াদের মারধরের প্রতিবাদ করায় সামাদ শেখের স্ত্রী হাফিজা খানম(৩২) ও হাফিজার দুই ভাই নাইম শেখ(২৫) এবং আজগার শেখ(৩৮)কে আসামী ফারুক শেখের নেতৃত্বে লোহার রড ,হাতুড়ি ও রাম দা দিয়ে এলপাতারিভাবে মারধর করে গুরুতর জগম করে।

আহত হাফিজা খানম জানান, আমার ভাড়াটিয়াদের মারধর করার প্রতিবাদ করায় আমাকে মেরে ফেলার জন্য চুল ধরে মাটিতে ফেলে আমার তলপেটে একাধিকবার লাথি মারে এবং আমার পায়ে, বুকেসহ শরীরে বিভিন্ন জায়গায় গুরুতর আঘাত করে আমাকে জখম করে। আমাকে হামলা থেকে বাঁচাতে আমার ভাই নাইম শেখ(২৫) এবং আজগার শেখ(৩৮) এলে তাদেরকে লোহার রোড ও রাম দা দিয়ে মাথায় কুপিয়ে জখম করে।

এঘটনায় ২৭/০৪/২০২০ইং তারিখে ৫জনকে আসামী করে গোপালগঞ্জ সদর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভূগী হাফিজা খানম । যার মামলা নং-২৭। উক্ত মামলায় আসামী করা হয় ১. ফারুক শেখ(জামিল), ২. রাসেল শেখ(৪০), ৩.রাফি শেখ(১৯),৪.বৃষ্টি ও ৫. রুহিন শেখ(২৬)কে।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত বরকত শিকদারকে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তিনি ফোন ধরেননি।