গোপালগঞ্জে বশেমুরবিপ্রবি’তে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীরা হামলার শিকার !!

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের মধ্যে ওপর হামলা করেছে আইন বিভাগের শিক্ষার্থীরা। যে কোনো প্রকারের অপ্রীতিকর পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য ক্যাম্পাসে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। রোববার দুপুরের পর এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, নেপালি শিক্ষার্থী সুমি শিং কে যৌননিপীড়নের অভিযোগে অভিযুক্ত সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক হুমায়ুন কবির বিশ্ববিদ্যালয়ের নীতিমালা উপেক্ষা করে আইন বিভাগের শিক্ষক, প্রক্টর রাজিউরের সার্বিক সহায়তায় তার ভাই রিয়াদকে আইন বিভাগে ভর্তি করেন। এরপর থেকে রিয়াদ প্রক্টরের দিক নির্দেশনায় ক্যাম্পাসে নানান ধরনের অশালীন কাজ করে আসছে।

সম্প্রতি রিয়াদ আইন বিভাগের শিক্ষক আব্দুল কুদ্দুসকে একটি রুমের ভেতরে আটকিয়ে মেরে ফেলার অপচেষ্টাও করেছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

এ ব্যাপারে ভিসি বরাবর বিচারের দাবি জানিয়ে লিখিত অভিযোগ করেও কোন ফল পাননি ওই প্রবীণ শিক্ষক আব্দুল কুদ্দুস।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন: রোববার দুপুরের পর আইন বিভাগের ওই শিক্ষার্থী রিয়াদ রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের এক ছাত্রীকে ইভটিজিং করেন। এ নিয়ে রাষ্ট্রবিজ্ঞান ও আইন বিভাগের শিক্ষার্থীদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে আইন বিভাগের শিক্ষক প্রক্টর রাজিউরের নেতৃত্বে আইন বিভাগের শিক্ষার্থীরা রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালায়।

এতে কমপক্ষে ২০ জন শিক্ষার্থী আহত হয়। গুরুতর আহতদের গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ক্যাম্পাসে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

গোপালগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর (সার্কেল) মোহাম্মাদ ছানোয়ার হোসেন বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের বিরাজমান পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ক্যাম্পাসে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।