অপরাধকোটালীপাড়া

লিঙ্গ কাটার অভিযোগ স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমিকের বিরুদ্ধে

গোপালগঞ্জে স্বামীর লিঙ্গ কেটে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমিকের বিরুদ্ধে।
এ ঘটনাটি ঘটেছে কোটালীপাড়া উপজেলার কলাবাড়ি ইউনিয়নের রামনগর গ্রামে। বিষয়টি রামনগর গ্রামে টক অব দা ভিলেজে পরিনত হয়েছে। স্বামী ধ্রুব গাইনকে (৩৫) কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
নাম প্রকাশ না করার স্বার্থে রামনগর গ্রামের একাধিক নারী পুরুষ জানান, রামনগর গ্রামের ধনঞ্জয় গাইনের ছেলে ধ্রুব গাইনের স্ত্রীর সাথে প্রতিবেশি দীজবর গাইনের ছেলে দীপক গাইনের বিবাহ বর্হিভূত সম্পর্ক ছিলো। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিরোধ চলে আসছিলো। সম্প্রতি দীপক গাইনের সাথে ধ্রুবর স্ত্রীর সম্পর্কের অবনতি ঘটে। দীপক এ ঘটনার প্রতিশোধ নেয়ার সুযোগ খুঁজতে থাকে। গত শুক্রবার রাত ১১ টার দীপক প্রেমিকার বাড়িতে গিয়ে ধ্রুবর সাথে বাক বিতন্ডায় জড়িয়ে পড়ে। এ সময় ধ্রুবর লিঙ্গ কাটার ঘটনা ঘটে।

আহত ধ্রুব বলেন, ওই দিন আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে ধারালো ছুরি নিয়ে দীপক আমাদের বাড়িতে আসে। প্রথমে তার সাথে ঝগড়াঝাটি হয়। পরে সে ধারালো ছুরি দিয়ে আমার ওপর হামলা করে। পরে আমাদের মধ্যে ধস্তাধস্তি হয়। এক পর্যায়ে সে আমার লিঙ্গ কেটে দিয়ে পালিয়ে যায়। ওই রাতেই আমি কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হই।
ধ্রুব’র স্ত্রী বিবাহ বর্হিভূত সম্পর্কের কথা অস্বীকার করে বলেন, দীপক সম্পর্কে আমার কাকা হন। তার সাথে আমার আগে সম্পর্ক ছিলো। এখন কোন সম্পর্ক নেই। সে প্রতিহিংসা বসত এ কাজ করেছে। আমি এ ঘটনার সঠিক তদন্ত ও বিচার চাই। সঠিক তদন্ত করা হলেই প্রকৃত ঘটনা বের হয়ে আসবে।

কোটালীপাড়া থানার ওসি শেখ লুৎফর রহমান বলেন, প্রতিপক্ষ ছুরি মারলে ধ্রুব’র গোপনাঙ্গ কেটে যায় বলে শুনেছি। বিষয়টি রহস্যজনক বলে মনে হচ্ছে। এ ব্যাপারে ধ্রুব’র পক্ষ থেকে একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে ।

কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সুশান্ত বৈদ্য বলেন, ধ্রুব হাসপতালে ভর্তি রয়েছে। তাকে চিকিৎসা করা হচ্ছে। গোপন অঙ্গে ছুরির আঘাত রয়েছে। তবে এ আঘাত সিরিয়াস নয়। সে সংকা মুক্ত। এখান থেকে চিকিৎসা নিয়েই সে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরবে।

এই বিভাগের সর্বশেষ খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button