আন্তর্জাতিক

চীনা কোম্পানির ওপর কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

চীনের কোম্পানির কাছে চিপ তৈরির সরঞ্জাম বিক্রির ওপর কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করতে যাচ্ছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। চীনা কোম্পানিগুলো হাইপারসোনিক অস্ত্রের মতো সামরিক সরঞ্জাম তৈরিতে এসব চিপ ব্যবহার করতে পারে এমন আশঙ্কা থেকেই মার্কিন আইনপ্রণেতারা এ সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্যমন্ত্রী গিনা রাইমন্ডোকে লেখা এক চিঠিতে সিনেটর টম কটন এবং রিপাবলিকান সদস্য মাইকেল ম্যাককল বেইজিংয়ের কাছে চিপ-তৈরির সরঞ্জাম বিক্রিতে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপের আহ্বান জানিয়েছেন।

চিঠিতে বলা হয়, ‘আমরা আপনাকে লিখিতখভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি ইলেক্ট্রনিক ডিজাইন অটোমেশনকে (ইডিই) একটি মূল প্রযুক্তি হিসেবে নির্ধারিত করা হোক এবং গণপ্রজাতন্ত্রী চীনের (পিআরসি) নিয়ন্ত্রণ, প্রভাব অথবা মালিকানায় থাকা সকল কোম্পানির লাইসেন্স চাওয়া হোক।’

ওই চিঠিতে বলা হয়, ‘সুস্পষ্ট প্রমাণ রয়েছে, চায়নিজ কমিউনিস্ট পার্টির (সিসিপি) সামরিক বিভাগের সঙ্গে যুক্ত থাকা কোম্পানিগুলো আধুনিক অস্ত্র তৈরিতে এই সফটওয়্যার ব্যবহার করছে।

ওয়াশিংটন পোস্টে প্রকাশিত সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদনের তথ্য উদ্বৃত করে চিঠিতে আরও উল্লেখ করা হয়, ‘সংবেদনশীল ইউএস ইডিএ সফটওয়্যারটি বেসামরিক কোম্পানি ফাইটিয়াম টেকনোলজির কাছে বিক্রি করা হয়েছে। কোম্পানিটি এই সফটওয়্যার উন্নত সেমিকন্ডাক্টর চিপ তৈরিতে ব্যবহার করবে; আর এই চিপটি পিআরসি সামরিক বাহিনীর পরিচালিত হাইপারসোনিক অস্ত্র গবেষণা ও পরীক্ষাগারে ব্যবহার উপযোগি সুপারকম্পিউটার তৈরিতে ব্যবহার করা হবে।’

আইনপ্রনেতারা চিঠিতে লিখেন, ‘আমরা গভীর উদ্বেগের সঙ্গে দেখতে পেয়েছি বাণিজ্য মন্ত্রনালয় এ ধরনের গুরুত্বপূর্ণ প্রযুক্তি রফতানির অনুমোদন দিয়েছে যা ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে দায়িত্বরত মার্কিন কর্মীদের লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করার অস্ত্র তৈরিতে ব্যবহৃত হচ্ছে। এই ইডিএ সফটওয়্যারটিকে খুব দ্রুত ‘ফাউন্ডেশনাল টেকনোলজি’ হিসেবে অ্যাখা দিতে হবে বাণিজ্য মন্ত্রনালয়কে। এছাড়া চীনে যেকোন পণ্য রফতানির জন্য মার্কিন ইডিএ কোম্পানিগুলোর রফতানি লাইসেন্স থাকতে হবে। সূত্র:

উল্লেখ্য, সামরিক বাহিনীকে আধুনিকায়নের কাজে যুক্ত থাকার অভিযোগে যে সাতটি কোম্পানির বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে এতে এই ফাইটিয়ামও রয়েছে। সুত্র: এএনআই।

এই বিভাগের সর্বশেষ খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button