গোপালগঞ্জগোপালগঞ্জ সদরটপ নিউজঢাকা বিভাগদেশজুড়ে

গোপালগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের অফিসার স,ম আরিফ উল হক এর বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ : সমালোচনার ঝড়

গোপালগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স ষ্টেশনের সিনিয়র ষ্টেশন অফিসার স,ম আরিফ উল হক এর বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও নানা অনিয়মের অভিযোগ তুলে গত ২৩ ডিসেম্বর মহাপরিচাল ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরে একটি অভিযোগের দেওয়া হয়। তা নিয়ে জেলা জুড়ে সমালোচনার ঝড় বইছে ।

অভিযোগে বলা হয়, গোপালগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স ষ্টেশনের সিনিয়র ষ্টেশন অফিসার স,ম আরিফ উল হক যার পরিচিতি নং-৪৬৭৭ । যিনি একজন দুর্নীতিবাজ, অত্যাচারী প্রতিহিংসা পরায়ন মানুষ। অভিযোগ পত্রে উল্লেখ করা হয় গত ২১ ডিসেম্বও মঙ্গলবার বিকাল ৪ টা বেজে ৫৫ মিনিটের সময় গোপালগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স ষ্টেশনের বিদ্যমান দ্বিতীয় কল গাড়ী যোগে যাদেও ডিউটি ছিলো তাদের না নিয়ে তার মনোনিত ড্রাইভার ও ফায়ার ফাইটার গন নিয়ে মের্সাস নিগী ফিলিংস্টেশন গোপালগঞ্জের উদ্দেশ্যে জ¦ালানী উওলন করিতে যান । ৫০০ শত লিটার ডিজেল জ¦ালানীর ছিলিপ দিয়ে ৩৮০ লিটার ডিজেল জ¦ালানী আনেন এবং সাথে সাথে বিভিন্ন চ্যানেলের সংবাদকর্মীদের কাছে ধরা পরে যান। বিশ বাইশ জন সংবাদকর্মী ফায়ার ষ্টেশনের অভ্যান্তওে জায়ায়েত হন।
ষ্টেশন অফিসার স,ম আরিফ উল হক সু-কৌশলে তাদেও সাথে আলোচনা করে বিষয়টি ধামাচাপা দেন।

অভিযোগে আরো বলা হয়, গোপালগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স ষ্টেশনের
পুরাতন মুল ব্যারাক ভবন ঠিকাদার কতৃক ভাংগা হয় । ঐ ভবন ভাংগতে যে পরিমান বিদ্যুৎ ব্যায় হবে তার অনুকুলে একটি সাব মিটার লাগানোর কথা ছিলো কিন্তু ঠিকাদারের সাথে সিনিয়র ষ্টেশন অফিসার স,ম আরিফ উল হকের সু-সম্পর্ক থাকার কারনে মিটার লাগানোর প্রয়োজন মনে করেনি। যে ষ্টেশনে প্রতি মাসে আনুমানিক ১৫,১৬.১৭ হাজারের মাতো বিল আসে আর সেখানে সেপ্টম্বর ২০২০ মাসে ৩১,১৪০ অক্টোবর মাসে ৪১,০০০ নভেম্বও মাসে ৪১,০০০ টাকা বিল আসছে। এই বাড়তি ৬০ হাজার সামথিং টাকা ঠিকাদারের নিকট থেকে নিয়ে নিজের পকেট ভারি করেন। এবং উক্ত টাকার বিলটি স্বাভাবিক ভাবে মাসের বিদ্যুৎ বিল হিসাবে চালিয়ে দেন । বিগত সময়ের উপ-সহকারী পরিচালক গোপালগঞ্জ মহোদয়গন বিদ্যুৎ বিলের অসংগতি দেখে বিল পাশ না করে সু-ষ্পষ্ট জবাব চাইলে সে অধ্যবদি পর্যন্ত কোন ষ্ষ্ট জবাব দিতে পারেনি। এবং অধ্যবদি বিলটি পরিশোধ ও করা হয়নি। এই অযোগ্য অদক্ষ দূর্নীতিবাজ অফিসারের বিরুদ্ধে আইনুগ ব্যাবস্থা গ্রহন করার জন্য সর্নিব্ধ অনুুরোধ করছি মর্মে একটি অভিযোগ দেওয়া হয়।

এ ব্যাপারে গোপালগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স ষ্টেশনের অফিসার স,ম আরিফ উল হকের সাথে কথা বলতে গেলে তিনি ব্যাস্ত আছেন এখন কথা বলা সম্ভব না বলে জানিয়ে দেন। পরবর্তীতে তাকে একাধিক বার ফোন দিলেও তিনি ফোন টি রিসিভ করেন নি।

 

 

এই বিভাগের সর্বশেষ খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button